মহাসচিব! আর কত দূর্নীতি প্রকাশ পেলে আপনারা সরে দাড়াবেন?আপনি হাজার হাজার ছাত্রের বুখারীর উস্তায, এমনকি আমারও বুখারি-তিরমীযির উস্তায আপনি। আমরা কোন অবস্থাতেই চাইনা জাতির সামনে এসব দূর্নীতির চিত্র উঠে আসুক। গরীবের আমানতের হিসাব বুঝিয়ে দিয়ে অনিয়মের দোষ স্বীকার করে সম্মানের সাথে সরে দাড়াবেন বলে এখনো আশা করি।পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক আবূ ইউসুফও স্বীকার করেছে বিপদে পড়লে সে সব বলে দিবে, কখন কোথায় কেন কি করেছেন আপনারা?অতএব আর ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করবেননা। আপনার সাথে আমাদের তরুণ প্রজন্মের কোন দন্দ্ব নেই, আমরা অন্যায় ও দূর্নীতির ঘোরবিরোধী, যাদের নামই উঠে আসবে প্রমাণ সহ তাদের নাম প্রকাশ করতে বাধ্য হবো এ ক্ষেত্রে বিন্দুমাত্র পক্ষপাতদুষ্ট আচরণ করতে অন্তত আমরা তরুণ প্রজন্ম প্রস্তত নই। আপনি গতাকল আপনার কাছের লোকদের নিকট দৃঢ় প্রতিজ্ঞা ব্যাক্ত করেছেন যে, যে কোন মূল্যে আমাকে খুঁজে বের করবেন!হ্যাঁ, ক্ষমতা আপনার রয়েছে। আমার পরিণতি আমি বু্ঝে শুনেই শেষ পর্যন্ত মাঠে থাকবো ইনশাআল্লাহ্। আমি কারো সাথে বিন্দুমাত্র আপোষ করবোনা। হয়ত আমার ১৪ বছর জেল হবে! কিংবা মাসের পর মাস রিমান্ডে থাকবো! অথবা জাতির রোষাণল থেকে বাঁচতে আপনারা আমাকে গুম করে মেরে ফেলতেও দ্বিধা করবেননা। এক্ষেত্রে আমার অবস্থান… فلست أبالي حين أقتل مسلماগত ৪ তারিখ শনিবার সর্বপ্রথম আমি আনাসের ফরিদাবাদ অবস্থানের জানান দিয়েছি ফেসবুকে। তারপর কী করলেন!দালালরা ফেসবুকে প্রচার শুরু করলো আপনারা বেফাক মিটিং শেষ করে মাগরিব পর্যন্ত নাকি মাদরাসায় ই আসেননি! তারপর দিন পুলিশের সাইবার ক্রাইম টিমকে ডেকে আনলেন মাদরাসায়! কী হচ্ছে তাহলে এসব??আপনাদের ক্ষমতা অনেক বেশী সেটা আমি খুব ভালো করেই জানি। আমি এক উসামা হারিয়ে গেলে আল্লাহ লক্ষ উসামা সময় মত দাড় করিয়ে দিবেন ইনশাআল্লাহ্। আল্লাহ আমাকে আপোষ করে দ্বীন রক্ষার ঠিকাদারি দেননি।আপনাদের শুভবুদ্ধির উদয় হোক এখনো সেই প্রত্যাশা ই করি।মাআসসালাম: ????? ????????